শিরোনাম
জামালপুর রেলওয়ে ওভারপাসে আরো ১৫০ কোটি টাকা বরাদ্দ দিলেন প্রধানমন্ত্রী, ব্যয় দাড়ালো ৪৫০ কোটি টাকা ঢাবির ‘খ’ ইউনিটে প্রথম রাজেন্দ্র কলেজের নাহনুল কবির নুয়েল দেশের গন্ডি পাড়ি দিয়ে আন্তর্জাতিক পরিসরে সম্মানিত তাহসীন বাহার মাদকাসক্তি রোধে পারিবারিক বন্ধন দৃঢ় করতে হবে: জেলা প্রশাসক কুসিক নির্বাচনের বিজয়ী প্রার্থীদের গেজেট প্রকাশ আগামীকাল প্রকাশ করা হচ্ছে ঢাবির ‘খ’ ইউনিট অর্থাৎ মানবিক বিভাগে ভর্তি ফল কুমিল্লায় পিকআপে মাদক পরিবহনের সময় ১০০ কেজি গাঁজাসহ আটক ১ টাকার অভাবে চিকিৎসা বন্ধ কলেজছাত্রী ফারিহার পাবনা আমিনপুরে ১কেজি গাঁজাসহ আটক-১ টিকটিক বানাতে পদ্মা সেতুর নাট-বল্টু খুলে নিলো যুবক
হাসিমুখে বাড়ি ফিরছে মানুষ

হাসিমুখে বাড়ি ফিরছে মানুষ

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লা অংশে যানবাহনের চাপ নেই। নেই যানজটও। তাই প্রিয়জনদের সাথে ঈদ কাটাতে স্বস্থিতে হাসিমুখেই বাড়ি ফিরছেন ঈদের ছুটি পাওয়া মানুষ। তীব্র তাপদাহ সহ্য করেই ছুটছে তারা স্বজনের কাছে মুসলমানদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব ঈদ উল ফিতর পালনের উদ্দেশ্যে।
গতকাল শুক্রবার ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুমিল্লা অংশের বিভিন্ন এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, কোথাও কোন যানজট নেই। যানবাহনের চালকরা দাউদকান্দি ও ইলিয়টগঞ্জ এলাকায় যানবাহনের ধীর গতির  অভিযোগ করলেও দুুপুরে ওই এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, সেখানেও কোন যানজট নেই। তবে সকাল থেকে মহাসড়কের বিভিন্ন জায়গায় যাত্রীদের ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। কুমিল্লা থেকে দেশের বিভিন্ন এলাকায় যাবার জন্য মোড়ে মোড়ে ভিড় করে আছে ঘরমুখো মানুষ। অতিরিক্ত যাত্রীর কারণে যানবাহনের কিছুটা সংকট দেখা দিলেও বেলা বাড়ার সাথে সাথে সংকট কমে যায়। বাস না পাওয়ায় ছোট ছোট যানবাহন ভাড়া করে দূরপাল্লায় যাত্রা করতে দেখা গেছে অনেককে। মাইক্রোবাস, প্রাইভেটকার, লেগুনাসহ বিভিন্ন পরিবহন ভাড়া করে ছুটছেন বাড়ি পথে।
ছুটি পেয়ে বাড়ি ফিরতে সকাল থেকেই পথে নামে মানুষ। ব্যাগ-বস্তা বোঝাই জামা-কাপড় প্রয়োজনী পন্য নিয়ে বাসের অপেক্ষায় পরিবার গুলো। কেউ একা একা মাঝপথ থেকে বাস ধরাও অপেক্ষায়। কড়া রোদ এবং তাপদাহ থাকায় অপেক্ষমান যাত্রীদের ভোগ করতে হয়েছে কিছুটা ভোগান্তি। তবে যানজট না থাকায় রোজা রেখেও হাসিমুখে বাড়ি ফিরছেন ঈদযাত্রার মানুষ।
সকালে কুমিল্লার পদুয়ার বাজার এলাকায় গিয়ে দেখা যায়, গাইবান্ধাগামী অন্তত ১৫ জন যাত্রী বাড়ি যাবার জন্য পিক-আপ ট্রাক ভাড়া করে রওনা হয়েছে। জনপ্রতি ১৮০০ টাকা ভাড়া দিয়ে তারা যাত্রা করছে বাড়ির পথে। বাঁশ দিয়ে ট্রাকের উপর চাঁই দিয়ে কোন রকমে দাঁড়িয়ে-বসে রওনা হয়েছেন তারা। পিক আপের যাত্রী সানোয়ার জানান, পিক আপে করে রওনা হওয়া সবাই কৃষি ও নির্মান শ্রমিক। সবার বাড়ি গাইবান্ধা জেলায়। বাসে যেতে বেশি ভাড়া লাগে তাই কষ্ট করে হলেও পিক আপে রওনা হয়েছে সবাই।
আরেক যাত্রী ফয়সাল জানান, কষ্ট করে হলেও বাড়ি ফিরবো এটাই শান্তি। তবে গাড়ি ভাড়া এত বেশি যে এই টাকা শ্রমিকরা রোজগার করতে এক সপ্তাহ লাগবে।
ঢাকা থেকে কুমিল্লা ফেরা যাত্রী শাহিন জানান, শুক্রবার সকালে ঢাকা থেকে কুমিল্লা আসতে কোথাও কোন যানজট পাই নি। আশা করি ফেরার পথেও কোন ভোগান্তি হবে না।
অন্যদিকে মহাসড়কে যানজট না থাকায় খুশি চালকরাও। সময় মত যাত্রী নিয়ে এবং আসতে পারায় এবার বাড়তি খরচ হচ্ছে না যানবাহনে। এছাড়া সময় মত যাত্রীরা তাদের গন্তব্যে পৌঁছাতে পারাায় তাদের নেই কোন অভিযোগ। কুমিল্লা থেকে ঠাকুরগাওগামী বাস চালক আরিফুর রহমান জানান, কুমিল্লা বা ঢাকা পার হতে কোন সময় লাগে না। কিন্তু এর পরে সমস্যা। কোথাও কোথাও যানজট লেগে গেলে পুরোনো ভোগান্তি পৌঁছাতে হয়।
চট্টগ্রামগামী তিশা পরিবহনের চালন সানাউল্লাহ জানান, দাউদকান্দি থেকে চট্টগ্রামের দিকে কোথাও কোন যানজট নেই।
এদিকে মহাসড়ক যানজটমুক্ত রাখতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করেছে হাইওয়ে পুলিশ। এছাড়া বিভিন্ন এলাকায় মহাসড়কের উপর বাজার ও অবৈধ দোকানপাট অপসারন করেছে পুলিশ।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© ২০২০ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed BY SmartHostBD.com